[১] নোবেলজয়ী অর্থনীতিবীদ পল ক্রুগম্যানের প্রশ্ন, যুক্তরাষ্ট্র কি ব্যর্থ রাষ্ট্র হতে যাচ্ছে?


[১] নোবেলজয়ী অর্থনীতিবীদ পল ক্রুগম্যানের প্রশ্ন, যুক্তরাষ্ট্র কি ব্যর্থ রাষ্ট্র হতে যাচ্ছে?

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] নিউ ইয়র্ক টাইমসে লেখা এক কলামে এই প্রশ্ন তোলেন ক্রুগম্যান। ক্রুগম্যান মনে করেন, মার্কিন সিনেটের নিয়ন্ত্রণ হয়তো রিপাবলিকান পার্টির হাতেই থাকছে। দলটিকে কট্টর রক্ষণশীল আখ্যা দিয়ে তিনি বলেছেন, তারা বাইডেনের প্রতিটি কাছে বাঁধাপ্রদানের চেষ্টা করবে।

[৩] উদাহরণস্বরূপ এই আলোচিত অর্থনীতিবীদ ও দার্শনিক বলেছেন, প্রতিটি রাজ্যে দুটি করে সিনেট আসন রয়েছে সে হিসেবে ওয়াইওমিং এর ৫ লাখ ৭৯ হাজার নাগরিকের ক্যালিফোর্নিয়ার ৩ কোটি ৯০ লাখ মানুষের সমান ক্ষমতা রয়েছে। এই অন্যান্য শহর আর গ্রাম এলাকার মধ্যে রাজনৈতিক বিভেদ তৈরী করে। ফলে যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক ভারসাম্যহীনতা তৈরি হওয়া বেশ সহজ।

[৪] বারাক ওবামার আমলে কংগ্রেসের দুই কক্ষেই রিপাবলিকান সংক্যাগরিষ্ঠতা ছিলো অন্তত দুই তৃতিয়াংশ সময়। এসময় তারা হার্ডবল ট্যাকটিস ব্যবহার করে প্রশাসনকে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির মুখে ফেলে দেয়। ফলে দেশটি ডুবে যায় গলা পর্যন্ত দেনায়। ক্রুগম্যান মনে করেন, বাইডেনের আমলে আরও বড় পরিসরে এই ঘটনা ঘটতে যাচ্ছে। করোনা মহামারীর সময় এই সমস্যা আরও প্রকট আকারে দেখা দিতে পারে।

[৫] ফলে রাষ্ট্র হিসেবে দ্রুতই ব্যর্থতার দিকে এগিয়ে যেতে পারে যুক্তরাষ্ট্র। খুব সহজে এই সমস্যার সমাধান হবে না। ক্রুগম্যান সুপারিশ করেছেন, এই সমস্যা সমাধানে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচন পদ্ধতির পরিবর্তন করতে হবে। সিনেট আসন বন্টন করতে হবে জনসংখ্যার ভিত্তিতে।





Was this helpful?

2 মন্তব্য

  1. Thank you for another magnificent post. Where else could anybody get that type of info in such an ideal way of writing? I’ve a presentation next week, and I’m on the look for such information.

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে