[১] দুই উপ নির্বাচন: কেন্দ্র দখল, এজেন্টদের মারধরের অভিযোগ , নির্বাচন প্রত্যাখ্যান ও পুননির্বাচনের দাবি বিএনপির

শিমুল মাহমুদ ও সোহাগ হাসান: [২] ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনের উপ নির্বাচনে ভোটকেন্দ্র ‘দখল’, ধানের শীষের এজেন্টদের ‘বের করে দেওয়া’ এবং সাধারণ ভোটারদের কেন্দ্র ‘ঢুকতে না দেওয়ার’ অভিযোগ করে নির্বাচন প্রত্যাখ্যান ও পুননির্বাচনের দাবি জানায় বিএনপি।

[৩] ঢাকা-১৮ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেনের পক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে দলটির নির্বাচন কমিটির সমন্বয়ক ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমানউল্লাহ আমান বলেন, আমরা নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করছি। একইসঙ্গে পুননির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি।

[৪] সিরাজগঞ্জ জেলা বিএনপি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেন বিএনপি প্রার্থী সেলিম রেজা। তিনি বলেন, একাধিকবার নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছি। কিন্তু কোন প্রতিকার পাইনি। শুধু নির্বাচন কমিশন নয় আইন শৃঙখলা বাহিনীর কারো সহযোগিতা পাইনি। কাজেই প্রহসনমূলক এ নির্বাচনকে প্রত্যাখ্যান করছি।

[৫] এরআগে দলটির কেন্দ্রীয় দপ্তরের দায়িত্বে থাকা সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন ভোট শুরু হওয়ার আধা ঘণ্টার মধ্যে ঢাকা-১৮ আসনের ২০৩টি ভোট কেন্দ্র দখলে নিয়ে বিএনপির এজেন্টদেরকে মারধর করে নিয়োগপত্র ছিঁড়ে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়। সিরাজগঞ্জ-১ আসনেও একই অবস্থা।

[৬] তিনি বলেন, দুই আসনে সাধারণ ভোটারদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হচ্ছে। এজেন্টদের বের করে দেওয়ার এই সব ঘটনার সময়ে প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করতে দেখা গেছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দিতে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের তারা সহায়তাও করেছে।





Was this helpful?

1 মন্তব্য

  1. you are really a good webmaster. The website loading speed is amazing. It seems that you’re doing any unique trick. In addition, The contents are masterpiece. you have done a wonderful job on this topic!

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে